বিজ্ঞপ্তি:
Welcome To Our Website...
সংবাদ শিরোনাম :
সমুদ্রবন্দরে তিন নম্বর স্থানীয় সতর্কতা সংকেত বিএনপি নেতাদের বক্তব্যে মনে হয় বেগম জিয়া কারাগারে থাকলেই ভালো হতো : তথ্যমন্ত্রী পেঁয়াজের ৫ শতাংশ আমদানি শুল্ক প্রত্যাহার বিএনপির আন্দোলনের তর্জন গর্জনই শুধু শোনা যায়, বর্ষণ দেখা যায় না : ওবায়দুল কাদের শীতে করোনা পরিস্থিতি আরও খারাপ হতে পারে, তাই প্রস্তুতি নিন : প্রধানমন্ত্রী পুলিশকে মানুষের আস্থা ও বিশ্বাসের প্রতীক হতে হবে-ডিসি খাইরুল আলম বিএমপি’র নবনির্মিত পুলিশ লাইন্সে বৃক্ষ রোপণ বরিশাল সিটি কর্পোরেশনে একাধিক চাকরির সুযোগ আমতলীতে ৩৬ হাজার শিশুকে খাওয়ানো হবে ভিটামিন ‘এ’ প্লাস করোনায় প্রাণ গেল আরও ২৬ জনের, শনাক্ত ১৫৪৪
মুশফিকের ব্যাটের নিলাম স্থগিত, ভুয়া ক্রেতার তালিকায় সানি লিওন!

মুশফিকের ব্যাটের নিলাম স্থগিত, ভুয়া ক্রেতার তালিকায় সানি লিওন!

বড় সমস্যা যে হচ্ছে সেটা মূলত বোঝা গিয়েছিল যখন মুশফিকের ব্যাটের নিলামের মূল্য প্রায় অস্বাভাবিক পর্যায়ে পৌঁছায়। দেখা গেল নিলামে এর মূল্য গিয়ে ঠেকেছে ৪১ লাখ টাকায়! আর ওয়েবসাইটে প্রকাশ্যে এই নিলামে অংশ নিতে কারো কোনো বাধা ছিল না। যে কেউ যা ইচ্ছে দাম হাঁকাতে পারছিল! দেখা গেল সানি লিওন নামের এক ক্রেতাও এসে হাজির মুশফিকের ব্যাট নিলাম থেকে কিনতে। সানি লিওন দামও হেঁকে বসেন বেশ মোটা অঙ্কের। ৭ লাখ ৭০ হাজার টাকা দিয়ে মুশফিকের প্রথম ডাবল সেঞ্চুরির ব্যাট কেনার জন্য আগ্রহ দেখান সানি লিওন। আসলে নিলামে ভুয়া ক্রেতাদের কারসাজিতে মুশফিকের এই ব্যাটের দাম আকাশচুম্বী পর্যায়ে পৌঁছায়। সার্বিক পরিস্থিতি দেখে এই ব্যাটের নিলাম কর্তারা শেষে নিলাম কার্যক্রম সাময়িকভাবে স্থগিত করে দেন।

মহামারী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত মানুষের সহায়তায় মুশফিক মহৎ উদ্দেশ্য নিয়ে তার প্রথম ডাবল সেঞ্চুরির প্রিয় ব্যাট নিলামে তোলার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন। এই নিলাম কার্যক্রম পরিচালনার জন্য মুশফিকের ম্যানেজমেন্ট কোম্পানি নিবকো ই-কর্মাস সাইট পিকাবু’র সঙ্গে চুক্তি করে। গত ৯ মে, শনিবার রাতে এই নিলাম কার্যক্রম শুরু হয়। জানানো হয়েছিল নিলাম কার্যক্রম চলবে ১৪ মে পর্যন্ত। কিন্তু মঙ্গলবার নিবকো ও পিকাবু’র কর্মকর্তারা জানিয়েছেন- ‘সন্দেহজনক কিছু প্রক্রিয়ার কারণে এই নিলাম আপাতত স্থগিত করা হয়েছে। ভুয়া ক্রেতা সেজে বেশ কয়েকজন এই নিলামে ব্যাটের মূল্য অস্বাভাবিক প্রক্রিয়ায় অনেক বেশি বাড়িয়ে দিয়েছে। আমরা নিলামে থাকা ব্যাটের মূল্য ধাপে ধাপে বাড়ানোর অনুমতি দিয়েছিলাম। একবারে ১০ হাজার টাকার বেশি যাতে না বাড়ে সেটাই স্থির করেছিলাম। কিন্তু কিছু ক্রেতা একেকবারে এই মূল্য ৮০ হাজার টাকা করে বাড়িয়ে দিয়েছে। আমরা আশঙ্কা করছি এতে সত্যিকারের ক্রেতারা নিরুৎসাহিত হবেন। তাই আপাতত নিলাম প্রক্রিয়া স্থগিত রাখা হয়েছে।’

পিকাবুর প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মৌরিন তালুকদার সাংবাদিকদের জানিয়েছেন-সত্যিকারের ক্রেতা খোঁজার জন্য তারা নিলাম প্রক্রিয়ায় শুদ্ধতা আনছেন। তিনি বলেন- ‘নিলামে অংশগ্রহণকারীদের কাছ থেকে আমরা কোনো টোকেন বা গ্যারান্টি মানি নেইনি। এটা ছিল উন্মুক্ত নিলাম প্রক্রিয়া। এই মুহূর্তে পুরো নিলাম প্রক্রিয়া আমরা স্থগিত করেছি। সত্যিকারের ক্রেতারা যাতে স্বাচ্ছন্দ্যে এই নিলাম প্রক্রিয়ায় সুষ্ঠুভাবে অংশ নিতে পারে সেজন্য নিলাম কার্যক্রমে কিছুটা পরিশোধন ও পরিমার্জন আনা হচ্ছে।’

মহৎ উদ্দেশ্য নিয়ে নিজের প্রিয় ব্যাট নিলামে চড়িয়েছিলেন মুশফিকুর রহিম। কিন্তু অসাধু যে এই বাজারেও আছে!

Please Share This Post in Your Social Media




কারিগরি সহায়তা: AMS IT BD