বিজ্ঞপ্তি:
দৈনিক শাহনামার অনলাইন ভার্সনে আপনাকে স্বাগতম। জাতীয়, রাজনীতি, খেলাধুলা, বিনোদন সহ সকল সংবাদের সর্বশেষ আপডেট জানতে ভিজিট করুন www.shahnamabd.com
সংবাদ শিরোনাম :
গৌরনদীতে নিরাপদ সড়ক দিবস পালিত গৌরনদীতে চোরাই গরুসহ চারজন গ্রেফতার বরিশাল বিসিক শিল্পনগরী পরিদর্শনে জেলা প্রশাসক জসিম উদ্দিন হায়দার গৌরনদীতে বিলের জমির ভেতরে সংখ্যালঘুর পরিত্যাক্ত বসতঘরে রহস্যজনক অগ্নিকান্ড নাা ফেরার দেশে চলে গেলেন কলাপাড়ায় প্রবীন সাংবাদিক বশির উদ্দিন বিশ্বাস | কলাপাড়া প্রেসক্লাবের তিন দিনের শোক কর্মসূচী বরিশালে গণনাট্য সংস্থার প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত সাংবাদিক বশির উদ্দিন বিশ্বাশের মৃত্যুতে দৈনিক শাহনামা ও বাংলার বনে’র শোক প্রকাশ কলাপাড়ার সিনিয়র সাংবাদিক বশির উদ্দিন বিশ্বাস আর নেই বিসিসি’র বর্তমান পরিষদের ৩ বছর পূর্তিতে আলোচনা সভা গলাচিপায় দ্বিতীয়বারের মতো নৌকার মাঝি তুহিন

ইভ্যালির চেয়ারম্যান ও এমডি গ্রেফতার

ইভ্যালির চেয়ারম্যান ও এমডি গ্রেফতার

আলোচিত ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান ইভ্যালির চেয়ারম্যান শামীমা নাসরিন এবং তার স্বামী প্রতিষ্ঠানের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) মোহাম্মদ রাসেলকে গ্রেফতার করে র‌্যাবের সদর দফতরে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (১৬ সেপ্টেম্বর) বিকেল ৫টা ৩০ মিনিটে রাজধানীর মোহাম্মদপুরের বাসা থেকে তাদের গ্রেফতার করে র‌্যাবের সাদা গাড়িতে করে সদর দফতরে নিয়ে যাওয়া হয়।

গত বুধবার (১৫ সেপ্টেম্বর) রাতে ইভ্যালির চেয়ারম্যান শামীমা নাসরিন ও এমডি রাসেলের বিরুদ্ধে অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে গুলশান থানায় মামলা হয়।

আরিফ বাকের নামে ইভ্যালির একজন গ্রাহকের করা ওই মামলার অভিযোগে বলা হয়, ইভ্যালির চমকপ্রদ বিজ্ঞাপনে আকৃষ্ট হয়ে বাদী আরিফ বাকের ও তার বন্ধুরা চলতি বছরের মে ও জুন মাসে কিছু পণ্য অর্ডার করেন। পণ্যের অর্ডার বাবদ মূল্য বিকাশ, নগদ ও সিটি ব্যাংকের কার্ডের মাধ্যমে সম্পূর্ণ পরিশোধ করেন তারা। পণ্যগুলো ৭ থেকে ৪৫ কার্যদিবসের মধ্যে ডেলিভারি ও নির্দিষ্ট সময়সীমার মধ্যে সরবরাহে ব্যর্থ হলে প্রতিষ্ঠানটি সমপরিমাণ টাকা ফেরত দিতে অঙ্গীকারাবদ্ধ ছিল। কিন্তু ওই সময়সীমার মধ্যে পণ্যগুলো ডেলিভারি না পাওয়ায় বহুবার ইভ্যালির কাস্টমার কেয়ার প্রতিনিধিকে ফোন করা হয়। সর্বশেষ গত ৫ সেপ্টেম্বর যোগাযোগ করে অর্ডার করা পণ্যগুলো পাওয়ার চেষ্টা করেও ব্যর্থ হন বাদী ও তার বন্ধুরা।

এক পর্যায়ে পণ্য প্রদান ও টাকা প্রদানে ব্যর্থ হওয়ার পর ৯ সেপ্টেম্বর ইভ্যালির ধানমন্ডির অফিসে যান বাদী। ইভ্যালির এমডি মোহাম্মদ রাসেলের সঙ্গে কথা বলতে চাইলে সেখানকার কর্মীরা উত্তেজিত হয়ে চিৎকার-চেঁচামেচি করেন। একপর্যায়ে অফিসের অভ্যন্তরে থাকা ইভ্যালির এমডি রাসেল উত্তেজিত হয়ে তার রুম থেকে বেরিয়ে এসে বাদীকে ভয়ভীতি প্রদর্শন করেন এবং তাদের অর্ডারের পণ্য অথবা টাকা দিতে অস্বীকৃতি জানান। তাকে ভয়ভীতি ও হুমকিসহ দুর্ব্যবহার করেন, ফলে তিনি চরম আতঙ্কগ্রস্ত হয়ে দিনযাপন করছেন এবং পণ্যগুলো বুঝে না পাওয়ায় আর্থিক ও মানসিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন।

Please Share This Post in Your Social Media




All rights reserved by Daily Shahnama
কারিগরি সহায়তা: Next Tech