বিজ্ঞপ্তি:
Welcome To Our Website...
এমসি’র ছাত্রাবাসে গণধর্ষণ: সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ

এমসি’র ছাত্রাবাসে গণধর্ষণ: সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ

সিলেটের মুরারী চাঁদ (এমসি) কলেজের ছাত্রাবাসে গণধর্ষণের প্রতিবাদে আন্দোলনে নেমেছেন সাবেক ও বর্তমান শিক্ষার্থীরা। সেই সঙ্গে আন্দোলনে যোগ দিয়েছেন ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরাও।

শনিবার (২৬ সেপ্টেম্বর) দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে এমসি ও সরকারি কলেজের প্রায় শতাধিক শিক্ষার্থী কলেজের সামনে সিলেট-তামাবিল সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেন।

শিক্ষার্থীরা অভিযোগ করেন, করোনা পরিস্থিতিতে কলেজ বন্ধ থাকার পরেও কর্তৃপক্ষ কীভাবে ছাত্রাবাস খোলা রাখেন। কর্তৃপক্ষের অবগত থাকার পরেও কেন ছাত্রাবাস বন্ধ করে দেওয়া হল না। যে কারণে ঐতিহ্যবাহী বিদ্যাপিঠে কলঙ্কের দাগ লেগেছে বলে মনে করেন তারা।

এসময় শিক্ষার্থীরা গণধর্ষণের ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের দ্রুত গ্রেফতার ও ফাঁসি দাবি করেন। অন্যথায় তারা আরও কঠোর কর্মসূচি ঘোষণা করবেন বলে হুঁশিয়ারি দেন।

আন্দোলন চলাকালে টায়ার জ্বালিয়ে বিক্ষোভ করতে দেখা যায় শিক্ষার্থীদের। অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে কলেজ ও ছাত্রাবাসে বিপুল সংখ্যক পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

শুক্রবার (২৫ সেপ্টেম্বর) এমসি কলেজ ছাত্রাবাসে স্বামীকে আটক রেখে স্ত্রীকে ছাত্রলীগের ছয় জন নেতাকর্মী গণধর্ষণ করেন বলে অভিযোগ পাওয়া যায়। খবর পেয়ে রাত সাড়ে ১০টার দিকে ওই দম্পতিকে ছাত্রাবাস থেকে উদ্ধার করে পুলিশ। পরে ধর্ষণের শিকার ওই নারীকে সিলেট ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের ওসিসি সেন্টারে ভর্তি করা হয়।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, দক্ষিণ সুরমার নবদম্পতি শুক্রবার বিকেলে প্রাইভেটকারে করে এমসি কলেজে বেড়াতে যান। বিকেলে এমসি কলেজের ছাত্রলীগের ছয় জন নেতাকর্মী স্বামী-স্ত্রীকে ধরে ছাত্রাবাসে নিয়ে প্রথমে মারধর করেন। পরে স্বামীকে আটকে রেখে স্ত্রীকে গণধর্ষণ করেন। ছাত্রলীগ নেতাদের প্রত্যেকেই ছাত্রাবাসে থাকেন। তারা টিলাগড় কেন্দ্রীক আওয়ামী লীগ নেতা অ্যাডভোকেট রনজিত সরকার গ্রুপের অনুসারী।

এ ঘটনায় শনিবার ভোর রাতে ছয় জনের নামোল্লেখ করে অজ্ঞাত আরো দুই/তিন জনকে অভিযুক্ত করে নগরের শাহপরান থানায় মামলা দায়ের করেন ওই নারীর স্বামী। এছাড়া অস্ত্র উদ্ধারের ঘটনায় ছাত্রলীগের সাইফুর রহমানকে আসামি করে পৃথক আরেকটি মামলা দায়ের করেন শাহপরান (রহ.) থানার উপ পরিদর্শক (এসআই) মিল্টন সরকার। (নং-২২(৯)২০২০)।

সিলেট মহানগরীর শাহপরাণ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল কাইয়ুম বলেন, গণধর্ষণকারীদের ধরতে শনিবার ভোর রাতে অভিযান চালালে ছাত্রাবাসে সাইফুর রহমানের কক্ষ থেকে একটি পাইপগান, চারটি রামদা, একটি চাকু, দুটি লোহার পাইপ, প্লাসসহ বিভিন্ন জিনিস জব্দ করা হয়।

এদিকে শনিবার দুপুরে মুরারী চাঁদ (এমসি) কলেজে গণধর্ষণের ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন সিলেটের পুলিশ কমিশনার মো. গোলাম কিবরিয়া।

Please Share This Post in Your Social Media




কারিগরি সহায়তা: AMS IT BD