বিজ্ঞপ্তি:
দৈনিক শাহনামার অনলাইন ভার্সনে আপনাকে স্বাগতম। জাতীয়, রাজনীতি, খেলাধুলা, বিনোদন সহ সকল সংবাদের সর্বশেষ আপডেট জানতে ভিজিট করুন www.shahnamabd.com
পিরোজপুর জেলার জন্মদিন পালিত

পিরোজপুর জেলার জন্মদিন পালিত

dav

পিরোজপুর ॥ নানা আয়োজনে পিরোজপুর জেলার জন্মদিন উপলক্ষে পিরোজপুর দিবস পালিত হয়েছে।

সোমবার সকালে দি গোপাল কৃষ্ণ টাউন ক্লাবের আয়োজনে জেলা দিবস উপলক্ষে র‌্যালী ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

র‌্যালীটি টাউন ক্লাব মাঠ থেকে শুরু হয়ে শহরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিন শেষে টাউন ক্লাব স্বাধীনতা মঞ্চে একটি আলোচনা সভায় মিলিত হয়।

সভায় পিরোজপুর সদর উপজেলা চেয়ারম্যান মুজিবুর রহমান খালেক, পিরোজপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি মুনিরুজ্জামান নাসিম আলীসহ আরো অনেকে বক্তব্য রাখেন।

এসময় জেলার বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামজিক, সাংস্কৃতিক ও স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের অন্যান্য নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

 

উল্লেখ্য পিরোজপুর জেলা ১৯৮৪ সালের ১মার্চ প্রতিষ্ঠা হয়। জেলার আয়তন ১২৭৭.৮০ বর্গ কিমি/৪৯৩.৩৬ বর্গ মাইল (বিবিএস জরিপ ২০১১)।

জেলার লোকসংখ্যা ১১.১০ লক্ষ (বিবিএস জরিপ ২০১১) পুরুষ ৫.৫ লক্ষ (বিবিএস জরিপ ২০১১), মহিলা ৫.৬ লক্ষ (বিবিএস জরিপ ২০১১), জনসংখ্যা বৃদ্ধির হার ০.০২% (বিবিএস জরিপ ২০১১), পরিবার সংখ্যা ২৫৬০০২ টি (বিবিএস জরিপ ২০১১), জনসংখ্যার ঘনত্ব (প্রতি বর্গ কিমি) ৮৭১ জন (বিবিএস জরিপ ২০১১), উপজেলার সংখ্যা ৭টি। থানার সংখ্যা ৭টি, ৩টি পৌরসভা।

ইউনিয়ন ৫২টি, গ্রাম ৬৪৮টি। মোট জমির পরিমান (একরে) ৩৬২৪২৮ একর কৃষি ২১২৬১০ একর, অকৃষি ১৪৯৮১৪ একর, মোট খাস জমির পরিমান (একরে) ৫৮৭২ একর। প্রধান শস্য/ফসল ধান, সুপারি, পান, নারিকেল, পেয়ারা। বনাঞ্চল সংরক্ষিত বনভূমির পরিমান ৮.৫৫ বর্গ কিমি (বিবিএস জরিপ ২০১১), স্ট্রিপ বনায়ন ১৩৭৮ কিমি।

 

প্রধান নদ নদী দামোদর, কচা, বলেশ্বর, সন্ধ্যা, কালিগংগা, পোনা, গাবখান। যার আয়তন ১০৫.৯৮ বর্গ কিমি (বিবিএস জরিপ ২০১১), যোগাযোগ ব্যাবস্থায় রয়েছে রাস্তার দৈর্ঘ্য ৪০৮৯.১৯ কিমি (বিবিএস জরিপ ২০১১)।

খুলনা থেকে পিরোজপুরের দূরত্ব ৫৫ কিমি, বরিশাল থেকে দূরত্ব ৫০ কিমি, ঢাকা থেকে দূরত্ব ১৮৪ কিমি, ঢাকা থেকে দূরত্ব (জলপথে) ২৫৯ কিমি, যা সড়ক ও জলপথ সম্ভব।

পিরোজপুর জেলায় মহাবিদ্যালয় ৪০ টি (বিবিএস জরিপ ২০১১), মাধ্যমিক বিদ্যালয় ২৬৯ টি (বিবিএস জরিপ ২০১১), প্রাথমিক বিদ্যালয় ৯৫৫ টি (বিবিএস জরিপ ২০১১), কারিগরি প্রতিষ্ঠান ১২ টি (বিবিএস জরিপ ২০১১), মাদ্রাসা ৩৮৮ টি (বিবিএস জরিপ ২০১১), জেলায় শিক্ষার হার ৬৪.৯% (বিবিএস জরিপ ২০১১), পুরুষ ৬৫.০০ % (বিবিএস জরিপ ২০১১), মহিলা ৬৪.৭% (বিবিএস জরিপ ২০১১)।

জেলায় মোট ব্যাংক (শাখা) ৬০ টি (বিবিএস জরিপ ২০১১), চিকিৎসালয় রয়েছে আধুনিক হাসপাতাল ১টি, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ৬টি। খাদ্য গুদাম ৩০ টি যার ধারণ ক্ষমতা ১৬০০০ মেঃটন, স্টেডিয়াম ১ টি, সরকারি শিশু সদন ১ টি, উল্লেখযোগ্য নদী বন্দর ৮ টি।

 

জেলার দর্শনীয় স্থান গুলোর মধ্যে রয়েছে বলেশ্বর ব্রীজ, ইন্দুরকানি ব্রীজ, মঠবাড়ীয়ার মাঝের চর, সাপলেজা কুঠি বাড়ি ও মমিন মসজিদ, শামীম লজ, রায়েরকাঠী জমিদার বাড়ী ও শিব মন্দির, হুলারহাট লঞ্চঘাট, নাজিরপুরের ফ্লোটিং গার্ডেন ও প্রনব মঠ, নেছারাবাদের পেয়ারা বাগান, কাঠমহল,

শর্ষিণার প্রখ্যাত পীর হজরত নেছার উদ্দিন (রহঃ) এর মাজার, পাড়েরহাট মৎস্য বন্দর, কবি আহসান হাবিবের বাড়ি, পাড়েরহাট আবাসন প্রকল্প, শের-ই-বাংলার জন্ম স্থান (নানা বাড়ি)। জেলার ডাকঘর সংখ্যা ১০৩ টি (বিবিএস জরিপ ২০১১)।

এন,জি,ও ১১০ টি (বিবিএস জরিপ ২০১১)। জেলায় ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান ৪১৩৮ টি, মসজিদ ৩০৮৭ টি (বিবিএস জরিপ ২০১১) ও মন্দির ১০৫১ টি (বিবিএস জরিপ ২০১১)।

পিরোজপুরের গৌরবময় কুটির শিল্প শহরের পাল সম্প্রদায়ের গড়া মূর্তি, কাউখালী উপজেলার শীতল পাটি, স্বরূপকাঠী উপজেলার নারিকেলের ছোবড়া থেকে তৈরী পাপোস।

আশ্রায়ণ প্রকল্প/আবাসন প্রকল্প ১৪ টি ও আদর্শ গ্রাম ১৯ টি, জেলায় ১ টি বিসিক শিল্প নগরী, যেহেতু বৃহৎ শিল্প নাই (বিবিএস জরিপ ২০১১)।

মাঝারি শিল্প ১০ টি, ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প ৩০৬২ টি (বিবিএস জরিপ ২০১১), কর্মসংস্থান ১ লক্ষ প্রায়। জেলায় অবতরন কেন্দ্র ১ টি, জেলেদের সংখ্যা ৩৭,০০, প্রায় দৈনিক মৎস্য আহরণ ৭-১০ টন চাহিদা, ঘাটতি ২০%ঘেরের সংখ্যা ৫,৫০০ টি প্রায়।

 

 

জেলায় পশু সম্পদের মধ্যে কৃত্রিম প্রজনন কেন্দ্র ১৩টি, গবাদি পশুর সংখ্যা ৩,১৯,৭৫৬ টি প্রায়, খামারের সংখ্যা ৩০৪ টি, হাঁস-মুরগির সংখ্যা ৩০,৭৪,৬৭৫টি প্রায়, হাঁস মুরগির খামার ৫২৩ টি, বাৎসরিক ডিম উৎপাদন ১১,৯৩,০০,০০০ টি, বাৎসরিক মাংস উৎপাদন ২৩২০ মেট্রিক টন, চাহিদা ঘাটতি ২০%।

পর্যটন শিল্পের মধ্যে রয়েছে মঠবাড়ীয়ার মাঝের চর, সাপলেজা কুঠি বাড়ি ও মমিন মসজিদ, শামীম লজ, রায়েরকাঠী জমিদার বাড়ী ও শিব মন্দির, নাজিরপুরের ফ্লোটিং গার্ডেন ও প্রনব মঠ, নেছারাবাদের পেয়ারা বাগান, কাঠমহল, শর্ষিণার প্রখ্যাত পীর হজরত নেছার উদ্দিন (রহঃ) এর মাজার, পাড়েরটাহ মৎস্য বন্দর, কবি আহসান হাবিবের বাড়ি, শের-এ বাংলার জন্ম স্থান (নানা বাড়ি)।

 

 

জেলার সাংস্কৃতির তালিকায় রয়েছে থিয়েটার, যাত্রা, কবিগান, জারিগান, নৌকাবাইচ, গ্রামীণ মেলা, লাঠিখেলা, বহুরূপির খেলা, নাটক, সংগীত, নৃত্য, বিয়ের সয়লা উল্লেযোগ্য।

জেলার শিল্পকলা একাডেমী ০২ টি ও বিশিষ্ট অভিনেতা নুরুল ইসলাম, সওকত, আসাদুজ্জামান, শংকর শাওজাল, সর্বানী সাহা, রুমা, অমর সাহা, খান দেলোয়ার প্রমুখ। সংগীত শিল্পী খালিদ হাসান মিলু, ক্ষমাদাস গুপ্তা, আঃ করিম প্রমুখ।

বিশিষ্ট কবি ও সাহিত্যিক আঃ গনি, আহসান হাবিব, খান মোসলেহ্ উদ্দিন, সিরাজুল ইসলাম, হাবিবুর রহমান, এম.এ বারী, কাজী নুরুল হক, কথাসাহিত্যিক মুহাম্মদ মিজানুর রহমান প্রমুখ।

বিশিষ্ট সাংবাদিক তোফাজ্জেল হোসেন মানিক মিয়া, আমীর খসরু প্রমুখ। প্রচলিত খেলা এ্যাথলেটিকস্, হাডুডু, ফুটবল, ক্রিকেট, ভলিবল ইত্যাদি।

বিশিষ্ট খেলোয়াড় কবির, নান্না, আব্দুস ছালাম মধু, আঃ মান্নান, আনসার সিকদার, নিলুফা, তানিয়া, এমিলি, এমেকা, রতন, জাকির হোসেন চুন্নু প্রমুখ।

 

মহান মুক্তিযুদ্ধে ৯ নম্বর সেক্টর আওতায় ছিল পিরোজপুর জেলা। সেক্টর কমান্ডার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন মেজর এম.এ জলিল, সাব-সেক্টর কমান্ডার মেজর (অব:) জিয়াউদ্দিন আহম্মেদ।

জেলায় স্মৃতিস্তম্ভের সংখ্যা ৯ টি, মুক্তিযোদ্ধার সংখ্যা ২৬৬০ জন প্রায়, আর শহীদ মুক্তিযোদ্ধার সংখ্যা ৬১ জন (জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার)।

 

উল্লেখযোগ্য শহীদ মুক্তিযোদ্ধা আঃ রাজ্জাক (এস.ডি.ও), ফয়জুর রহমান আহমেদ (এস.ডি.পি.ও), হীরেন্দ্র মহাজন, ফজলুল হক খোকন, সাইফ মিজানুর রহমান (ম্যাজিস্ট্রেট), ওমর ফারুক (সভাপতি মহকুমা ছাত্রলীগ),

ভাগিরথী সাহা, সামছুল হক, ড. আবুল খায়ের, গণপতি হালদার, শ্রী ললীত কুমার বল, ড. জোতির্ময় গুহঠাকুরতা, জহিরুদ্দিন বাহাদুর প্রমুখ। বিশিষ্ট মুক্তিযোদ্ধা (জীবিত) এ. কে. এম. এ. আউয়াল, মেজর (অব:) জিয়াউদ্দিন আহম্মেদ (মৃত),

এ্যাড: এম,এ মান্নান (মৃত), গৌতম রায় চৌধুরী (জীবিত), এম,এ রববানী ফিরোজ (জীবিত) প্রমুখ।

জেলায় মুক্তিফৌজ গঠন কার হয় ২৭ মার্চ ১৯৭১ বিকাল ৪ টায়, পিরোজপুর সরকারি হাইস্কুল মাঠে (বর্তমান নাম সরকারী বালক উচ্চ বিদ্যালয়)। পিরোজপুর অস্ত্রাগার লুণ্ঠন হয় ১৯৭১ সালের ১৯ মে।

আর সর্বশেষ পিরোজপুর জেলা শত্রুমুক্ত হয় ৮ ডিসেম্বর ১৯৭১। তাই প্রতি বছর ৮ ডিসেম্বরকে পিরোজপুর হানাদার মুক্ত দিবস হিসেবে পালন করা হয়।

Please Share This Post in Your Social Media




কারিগরি সহায়তা: Next Tech